চট্টগ্রামের রাউজানে পুলিশ ও সন্ত্রাসীদের মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কামরুল হাছান ওরফে টিটু (৪০) নামের এক সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গত সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার নোয়াপাড়া সূর্যসেন পল্লি এলাকার একটি বিলে এ ঘটনা ঘটে। তবে কামরুলের পরিবারের দাবি, পুলিশের গুলিতে তিনি আহত হয়েছেন।
রাউজান থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী কামরুল হাছানকে সোমবার দুপুরে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাঁকে নিয়ে রাত একটার দিকে নোয়াপাড়া সূর্যসেন পল্লি এলাকায় অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। এ সময় আগে থেকে ওত পেতে থাকা কামরুলের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ছয় থেকে সাতটি গুলি ছোড়ে। এ সময় পুলিশও পাল্টা চারটি গুলি করে। সন্ত্রাসীদের গুলিতে শহীদুল ইসলাম ও রবিউল ইসলাম নামের পুলিশের দুই কনস্টেবল আহত হন। তাঁরা রাউজান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। বন্দুকযুদ্ধে কামরুল হাছানও আহত হন। ওসি বলেন, বন্দুকযুদ্ধের একপর্যায়ে কামরুলের সহযোগীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র, তিনটি পেট্রলবোমা ও দুটি গুলি উদ্ধার করা হয়।
ওসি জানান, কামরুলের বিরুদ্ধে রাউজান থানায় হত্যাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১৬টি মামলা আছে। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
কামরুলের স্ত্রী পারভীন আক্তার বলেন, তাঁর স্বামী ভালো হয়ে গেছেন। চাষাবাদ করে তিনি জীবিকা নির্বাহ করেন। তিনি এক সময় বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। পারভীন বলেন, অস্ত্র উদ্ধারের নাটক সাজিয়ে পুলিশ তাঁর স্বামীকে গুলি করেছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন