রাজধানীর গুলশান লেক থেকে গতকাল শুক্রবার সকালে মো. শাকিল (২৫) নামের এক তরুণের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ বলছে, ছিনতাই করে পালানোর সময় জনতার ধাওয়া খেয়ে লেকের পানিতে পড়ে শাকিল মারা গেছেন।
এ ছাড়া গতকাল চানখাঁরপুলের ফুটপাত থেকে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তির (৩৫) লাশ উদ্ধার করা হয়। একই দিন খিলগাঁও থানা এলাকার এক বাসা থেকে জাহিদ হাসান (৩৮) নামের এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তিনটি লাশই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
শাকিলের লাশ উদ্ধারের বিষয়ে গুলশান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মহিতুল আলম বলেন, খবর পেয়ে সকাল নয়টার দিকে গুলশান লেক থেকে শাকিল নামের ওই যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, এক ব্যক্তির কাছ থেকে মোবাইল ফোন ছিনিয়ে পালানোর সময় জনতার ধাওয়া খেয়ে লেকে পড়ে যান তিনি। পানিতে ডুবে তাঁর মৃত্যু হয়। তবে যে ব্যক্তির মোবাইল ফোন ছিনতাইয়ের কথা প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, তাঁর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।
এসআই মহিতুল বলেন, শাকিল তেমন কিছু করতেন না। ঢাকায় তাঁর নির্দিষ্ট ঠিকানাও নেই। তাঁর স্ত্রী এক সন্তান নিয়ে ভাটারার নূরের চালা এলাকায় থাকেন বলে জানা গেছে।
এদিকে শাহবাগ থানার এসআই আবদুল্লাহ আল মামুন প্রথম আলোকে বলেন, সকাল সাড়ে আটটার দিকে চানখাঁরপুলের ফুটপাত থেকে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়। জানা গেছে, তিনি মাদকাসক্ত ছিলেন। তাঁর শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ ও ধরন সম্পর্কে জানা যাবে।
খিলগাঁও থানার এসআই শাহজাহান মিয়া জানান, খবর পেয়ে বেলা আড়াইটার দিকে খিলগাঁওয়ের সিপাহীবাগের এক বাসা থেকে জাহিদ হাসানের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। বাসাটি তাঁর এক আত্মীয়র বলে জানা গেছে। কিছু দিন আগে তিনি সেখানে বেড়াতে গিয়েছিলেন। তিনি বিবাহিত। প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন