বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোট ৬ জানুয়ারি থেকে সারা দেশে লাগাতার অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করে। এর পর থেকে বরিশালের গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া উপজেলায় ২০ দলের তেমন কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি দেখা যায়নি। তবে যানবাহনে পেট্রলবোমা নিক্ষেপসহ বিভিন্ন ধরনের চোরাগোপ্তা হামলা চলছে। এসব হামলায় পাঁচজন প্রাণ হারান। হামলার জন্য বিএনপি ও আওয়ামী লীগ পরস্পরকে দায়ী করছে।
গত শনিবার ভোরে গাজীপুর থেকে ছেড়ে আসা পোলট্রি খাদ্যবোঝাই ট্রাকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের গৌরনদীর দক্ষিণ মাহিলাড়া নামক জায়গায় পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। এতে ট্রাকের চালক ফরিদপুরের ইজায়েদুল মিয়া ও তাঁর সহকারী একই জেলার মুন্না বিশ্বাস নিহত হন। এর আগে ২ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের গৌরনদী উপজেলার নিলখোলা নামক স্থানে একটি মালবোঝাই ট্রাকে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ট্রাকের চালক নূর হোসেন ও তাঁর সহকারী জাফর রাঢ়ী এবং চালকের শ্বশুর মো. মোতালেব হোসেন নিহত হন।
৪ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকাসহ বিভিন্ন উদ্দেশে বরিশাল থেকে ছেড়ে আসা অর্ধশতাধিক যানবাহন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিরাপত্তায় গৌরনদী এলাকা অতিক্রম করার সময় কাসেমাবাদ আকনবাড়ির সামনে ও কাসেমাবাদ লাল পুল এলাকায় একটি বাস ও দুটি ট্রাক ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা।
৩০ জানুয়ারি রাতে গৌরনদীর হোসনাবাদ এলাকায় ঢাকাগামী একটি লঞ্চে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। এতে লঞ্চের দোতলার কিছু অংশ পুড়ে যায়। দুজন আহত হন।
২৯ জানুয়ারি গভীর রাতে কটকস্থল এলাকায় একটি কাভার্ড ভ্যানে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করা হয়। এতে ভ্যানের চালক লিটন ও তাঁর সহকারী তুহিন মৃধা আহত হন। গত ২৮ জানুয়ারি কাসেমাবাদ এলাকায় দুটি ট্রাক ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা। ২৩ জানুয়ারি রাতে কটকস্থল এলাকায় পুলিশের পাহারার মধ্যেই বাঁশবোঝাই ট্রাকে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করা হয়। এতে ট্রাকের সামনের একাংশ পুড়ে যায়। ১৩ জানুয়ারি গভীর রাতে আগৈলঝাড়া সদরে পার্কিং করা একটি বিআরটিসি বাসে আগুন দেওয়া হয়।
জানতে চাইলে গৌরনদী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন মিয়া বলেন, ‘সরকারের এজেন্টরা হামলা চালিয়ে আমাদের নেতা-কর্মীদের নামে মামলা দিয়ে বাড়িছাড়া করেছে।’
অভিযোগ অস্বীকার করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মো. হারিছুর রহমান বলেন, বিএনপি একটি সন্ত্রাসী দল। তারাই দলীয় সন্ত্রাসীর সঙ্গে সর্বহারাদের যুক্ত করে চোরাগুপ্তা হামলাসহ পেট্রলবোমা হামলা চালিয়ে একের পর এক মানুষ হত্যা করছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন