default-image

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে মামলা করেছে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। গত শনিবার রাতে রাজশাহী নগরের মতিহার থানায় মামলাটি করেন তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এস এম সিদ্দিকুর রহমান।

অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা ফেরদৌস মোহাম্মদ শ্রাবণ বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী এবং বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের মানবসম্পদ উন্নয়নবিষয়ক সম্পাদক।

ভুক্তভোগী ছাত্রীর ভাষ্য, ২০১৯ সালের আগস্টে তাঁর সঙ্গে শ্রাবণের পরিচয়। পরে তিনি তাঁকে ধর্ষণ করেন। তিনি বিষয়টি প্রশাসনকে জানাতে চাইলে শ্রাবণ তাঁকে বিয়ে করবেন বলে জানান। ২০২০ সালের মার্চে তিনি গর্ভপাত করান। শ্রাবণ এখন তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে চান না। উল্টো শ্রাবণ তাঁর কাছে থাকা খুদে বার্তা ও ছবি ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার ভাষ্য, তাঁদের মধ্যে একটা সম্পর্ক একসময় ছিল। সেই সম্পর্ক একসময় ভেঙে যায়। কিন্তু কোনো ধরনের ধর্ষণের ঘটনা ঘটেনি। তিনি জানালেন, ওই ছাত্রীর বিরুদ্ধে তিনি মানহানির মামলা করবেন। বিষয়টি আইনিভাবেই মোকাবিলা করবেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, দুজনের মধ্যে একটা সম্পর্ক ছিল। সেই সম্পর্ক ভেঙেও গেছে। হয়তো এ কারণে ওই ছাত্রী মামলা করেছেন। তবে অভিযোগ প্রমাণিত হলে শ্রাবণের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবে।

মতিহার থানার ওসি এ এস এম সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে মামলা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0