লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলায় গত বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। পুলিশের ভাষ্য, তারা সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য। তাদের কাছ থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।
গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিরা হলো নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার দক্ষিণ আবিরপাড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম শাহেদ, একই এলাকার ইমাম হোসেন ও সোহেল। তাদের লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার রাতে চন্দ্রগঞ্জ-চাটখিল সড়কের ২ নম্বর ব্রিজ এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল সন্ত্রাসীরা। এ খবর পেয়ে রাত সাড়ে ১২টার দিকে চন্দ্রগঞ্জ থানার পুলিশ ওই এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েকটি গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে তিন সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে তাদের আটক করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি এলজি, একটি পাইপগান ও চারটি গুলি।
চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জানান, আটক তিনজনের বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর সদর, চন্দ্রগঞ্জ থানা এবং বিভিন্ন স্থানে ডাকাতিসহ একাধিক মামলা রয়েছে। তিনজনই সন্ত্রাসী জিসান বাহিনীর সদস্য। সম্প্রতি এ বাহিনীর জিসান কুমিল্লার দাউদকান্দিতে র্যা বের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন