নড়াইলের লোহাগড়ায় নাজমুল শেখ (৩৯) নামে এক কৃষক খুন হয়েছেন। আজ সোমবার ভোরে গিলেতলা গ্রামের ইটভাটার পাশ থেকে পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে।

নিহত নাজমুল উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের গিলেতলা গ্রামের মোসলেম শেখের ছেলে। নাজমুলের স্ত্রী ও তিন ছেলে রয়েছে।

নাজমুলের মা অতিরননেছা ও স্বজনদের অভিযোগ, প্রতিবেশী গোলাম রব্বানী মোল্লা এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। স্বজনদের ভাষ্য, গোলাম রব্বানী মোল্লার ধারণা যে তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে নাজমুলের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে সালিস বৈঠকও হয়েছে। এর জের ধরে এক বছর আগে নাজমুলকে হাতুড়িপেটাও করে গোলাম রব্বানী মোল্লার লোকজন। হাতুড়িপেটার পর প্রায় এক বছর আগে থেকে বাড়ি ছেড়ে নাজমুল উপজেলার নলদী ইউনিয়নের নওয়াপাড়া গ্রামে এক আত্মীয়ের বাড়িতে পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন। গতকাল রোববার সকালে ওই বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে যাননি নাজমুল। তাঁর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

অতিরননেছা বলেন, আজ সোমবার ভোরে পার্শ্ববর্তী বসুপটি গ্রামে মেয়ের বাড়িতে যাওয়ার সময় সবার আগে তিনিই লাশ পড়ে থাকতে দেখেন।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোকাররম এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, নিহত নাজমুলের গায়ে আঘাতের কোনো চিহ্ন নেই। তবে তাঁর গা সম্পূর্ণ ভেজা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে যে পানিতে ডুবিয়ে শ্বাসরোধ করে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। তবে তদন্ত সাপেক্ষে হত্যার প্রকৃত তথ্য জানা যাবে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ নড়াইল সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন