default-image

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী যে ভবনে থাকেন, সেই ভবনের একটি ফ্ল্যাটে গতকাল মঙ্গলবার রাতে চুরি হয়েছে। ওই ঘটনায় বনানী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন ভবনের ব্যবস্থাপক। বনানী থানা এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, ওই ফ্ল্যাটের বাসিন্দা একজন মিসরীয়। তিনি দেশের বাইরে আছেন। তাই খোয়া যাওয়া মালপত্র সম্পর্কে পুলিশ এখনো বিস্তারিত জানতে পারেনি।

গতকাল মঙ্গলবার গ্রিল কেটে ওই বাসায় চুরির ঘটনা ঘটে। এদিকে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র নাম না প্রকাশ করার শর্তে প্রথম আলোকে জানিয়েছে, চুরির ঘটনা ঘটার পর জানানোর পরও প্রথমে পুলিশ গুরুত্ব দেয়নি। পরে উপমন্ত্রী নিজেই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে উদ্যোগী হন। এ ঘটনায় আজ বুধবার জিডি হয়েছে।

তবে পুলিশ এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। বনানী থানার ওসি বলছেন, ভবনের ব্যবস্থাপক মামলা করতে চাইছিলেন না। কিন্তু নিয়মানুযায়ী তাঁর জিডি করার কথা নয়। পরে ফ্ল্যাটের বাসিন্দা ফিরে এলে জিডিটি মামলায় রূপান্তর করা হবে, এমন একটি বাক্য জুড়ে জিডি নিয়েছে পুলিশ।

সামান্য একটু ভুল–বোঝাবুঝি হয়েছে বলেও জানান নূরে আযম মিয়া। তিনি জানান, চোর ধরার চেষ্টা চলছে। তবে ভবনের সিসি ক্যামেরার তার কাটা থাকায় ওখানকার ফুটেজ পাওয়া যায়নি। আশপাশের ভবনের ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0