বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল বিকেলে আর্য দত্তপাড়া এলাকায় ফারুক খালাসির ছেলে তাওসিফ (১২) পাশের মঙ্গল হাওলাদারের আমগাছে ঢিল ছোড়ে। এ নিয়ে বিকেলে কথা-কাটাকাটি হয়। ওই সূত্র ধরে রাত আটটার দিকে মঙ্গল হাওলাদারসহ ৮ থেকে ১০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাওসিফদের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তাওসিফের মা রুবি বেগমকে (৪৫) মারধর করা হয়। বাধা দিতে গেলে তাওসিফের ভাই রাকিব খালাসিকে পাশের কলাবাগানে নিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ সময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে আহত হন পাঁচজন। রাতেই আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে প্রথমে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে রাকিব ও তাঁর মা রুবি বেগমকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। রাত সাড়ে ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাকিবের মৃত্যু হয়।

নিহতের রাকিবের বাবা ফারুক খালাসি বলেন, ‘সামান্য ঘটনার জন্য আমার ছেলেকে ওরা ধইরা নিয়া পাশের কলাবাগানে যায়। সেখানে ৮ থেকে ১০ জন মিলে আমার ছেলেডারে ওরা কুপাইয়া মারছে। আমি ওগের বিচার চাই।’
শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন বলেন, আমগাছে ঢিল ছোড়া নিয়ে সংঘর্ষের সূত্রপাত। এতে একজন মারা গেছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন