বিজ্ঞাপন

আদালত সূত্রে জানা গেছে, শিশুটি জবানবন্দিতে জানায়, গত ১৫ আগস্ট বিকেলে নগরের ইপিজেড থানার আকমল আলী রোডের জেলে পাড়াসংলগ্ন বেড়িবাঁধের ওপর খেলা করছিল ওই দুই শিশু। খেলা নিয়ে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। তখন শিশু শাওন তাকে ‘মুঠো’ বলে গালি দেয়। এর আগেও তাকে এই গালি দিত। সেদিন ক্ষুব্ধ হয়ে শাওনের গলা টিপে ধরে শিশুটি। কিছুক্ষণ পর তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে বেড়িবাঁধের পাশে সাগরে লাশটি টেনে নিয়ে ফেলে দেয়। লাশটি পানিতে ভাসার পর সে বাসায় চলে আসে।
শাওনের বাবা আবদুর রহিম প্রথম আলোকে বলেন, আর কোনো শিশু যাতে এভাবে প্রাণ না হারায়, মা–বাবার সতর্ক হওয়া উচিত। লাশটি উদ্ধারের পর তাঁরাও ধারণা করেছিলেন, পানিতে পড়ে মারা গেছে তাঁর ছেলে। কিন্তু ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে আসে শাওনকে হত্যা করা হয়েছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন