শেরপুরের শ্রীবরদীতে নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে মো. সুলতান সরকার নামে এক যুবককে আটক করেছে র‌্যাব। এ সময় তাঁর কাছ থেকে চারটি ককটেল উদ্ধার করা হয়।

সুলতানের বাড়ি শ্রীবরদীর চাংপাড়া গ্রামে। আজ শুক্রবার সকালে র‌্যাব-১৪–এর সদস্যরা সুলতানকে তাঁর বাড়ি থেকে আটক করে। রাতে তাঁকে শ্রীবরদী থানায় সোপর্দ করা হবে। তাঁর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

র‌্যাব-১৪–এর অধিনায়ক মো. আনিসুজ্জামান আজ সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, কয়েকজন সন্ত্রাসী নাশকতার জন্য বিস্ফোরক দ্রব্য বহন করছে—এমন সংবাদের ভিত্তিতে সুলতানকে আটক করা হয়েছে। তিনি দাবি করেন, আটক সুলতান একজন তালিকাভুক্ত ‘সন্ত্রাসী’। তাঁর বিরুদ্ধে রেলে নাশকতাসহ বিভিন্ন অপরাধের অভিযোগে দেশের কয়েকটি থানায় মামলা রয়েছে। র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি (সুলতান) ৫/৬ জন সহযোগীকে নিয়ে শেরপুর শহরে নাশকতার পরিকল্পনার কথা স্বীকার করেছেন।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন