মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় গত বৃহস্পতিবার হারুণ মিয়া (৬০) নামে ময়দা কারখানার এক নৈশপ্রহরী খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করেছে পুলিশ।
হারুণ মিয়া উপজেলার নোয়াবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা।
কারখানা কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলা সদরের শ্যামলী এলাকায় অবস্থিত পৌর মেয়র মধু মিয়ার মালিকানাধীন জালালাবাদ ফ্লাওয়ার মিলে দুর্বৃত্তরা প্রবেশ করে। পরে তারা হারুণ মিয়ার হাত ও মাথার পেছনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এতে হারুণ মারা যান। দুর্বৃত্তরা কারখানার কার্যালয়ের ক্যাশবাক্স ভেঙে সাড়ে চার থেকে পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে যায়। গতকাল শুক্রবার পুলিশ এসে তাঁর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে পাঠায়।
পুলিশের ধারণা, দুর্বৃত্তরা কারখানার দেয়াল টপকে ভেতরে প্রবেশ করেছে। এরপর তারা কারখানার ভেতর থেকে প্রধান ফটকে তালা মারে।
এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল জলিল গতকাল রাত পৌনে আটটার দিকে প্রথম আলোকে জানান, এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি। তবে তাঁরা ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কারখানার হিসাবরক্ষক শামছুল আলমকে আটক করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন