বাংলাদেশে চলমান রাজনৈতিক সহিংসতা অবসানের কোনো লক্ষণ দেখছে না আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ)। সহিংস এসব অপরাধ বন্ধে সব পক্ষের সহযোগিতা করা এবং অপরাধের জন্য দায়ীদের বিচারের আওতায় আনা উচিত বলে মনে করে সংগঠনটি। তবে এসব সহিংসতার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার ক্ষেত্রে সবার অধিকার রক্ষার বিষয়টি সরকারকে নিশ্চিত করতে হবে।
গতকাল শনিবার এইচআরডব্লিউর এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়েছে।
বিবৃতিতে বলা হয়, সহিংসতার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার ক্ষেত্রে সরকারকে নির্বিচারে শক্তি প্রয়োগ, গ্রেপ্তার ও গুম পরিহার করতে হবে। সব রাজনৈতিক নেতাকে সমর্থকদের প্রতি সুস্পষ্ট বার্তা দিতে হবে যে বেআইনি কাজ ও সহিংসতা থেকে বিরত থাকতে হবে। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, এক মাসের বেশি সময় ধরে চলমান এই সহিংসতায় ৬০ জনের মতো মানুষ নিহত ও শত শত মানুষ আহত হয়েছে। সারা দেশে গ্রেপ্তার করা হয়েছে হাজার হাজার মানুষকে।
এইচআরডব্লিউর এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক ব্রাড অ্যাডামস বলেন, ‘চলমান সিরিজ সহিংসতা বন্ধে সব পক্ষের সহযোগিতা করা উচিত। অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার বিষয়টি নিশ্চিত করা উচিত।’ তিনি আরও বলেন, বিরোধী দলের কেউ কেউ এসব সহিংসতা করেছে। কিন্তু সেটা সরকারের বিভিন্ন বাহিনীর মাধ্যমে হত্যাকাণ্ড, আহত ও ভুলভাবে গ্রেপ্তারের মতো কর্মকাণ্ডগুলোকে ন্যায্যতা দেয় না।
বিবৃতিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ কিছু দেশ সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়ে আসছে। ভারতের মতামতকে বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলো গুরুত্ব দেয় উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, সহিংসতা বন্ধে ভারতের নতুন করে আহ্বান জানানো উচিত।
এইচআরডব্লিউর এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক অ্যাডামস বলেন, বাংলাদেশের চলমান পরিস্থিতিকে বিশ্বসম্প্রদায় আর উপেক্ষা করতে পারে না। রাজনৈতিক নেতাদের এটা ভালোভাবে উপলব্ধি করতে হবে যে রক্তপাত বন্ধ না হলে অন্যান্য দেশের সঙ্গে এর মারাত্মক প্রভাব পড়বে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন