সাগরপথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার চেষ্টা যেন থামছেই না। গত কয়েক দিনের ধারাবাহিকতায় মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতিকালে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সেন্টমার্টিন থেকে গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে ১৭ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষকে  উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। এদের মধ্যে ৭ জন নারী এবং ১০ জন পুরুষ।

এ সময় ৫ জন পাচারকারীকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশনের কমান্ডার ফয়েজুল ইসলাম মণ্ডল।

উদ্ধারকৃত রোহিঙ্গারা নয়াপাড়া, লেদা ও জাদিমোরা রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরের বাসিন্দা। উদ্ধার করা ১৭ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও পাঁচজন পাচারকারীকে আজ শনিবার সকাল ১০টার দিকে টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। তাদের নিজ নিজ শরণার্থীশিবিরে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

ফয়েজুল ইসলাম মণ্ডল বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাঁরা জানতে পারেন যে মানবপাচারকারী চক্রের সহযোগিতায় অবৈধভাবে সাগরপথে মালয়েশিয়া পাড়ি দেওয়ার জন্য বেশ কয়েকজন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষকে সেন্টমার্টিন ছেরাদিয়া সৈকত এলাকায় আনা হয়েছে। তাঁর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ১৭ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার এবং পাঁচজন পাচারকারীকে আটক করা হয়েছে। পাচারকারীরা কক্সবাজারের কুতুবদিয়া, মহেশখালী, রামু ও উখিয়ার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস প্রথম আলোকে বলেন, উদ্ধার করা রোহিঙ্গাদের স্ব স্ব রোহিঙ্গা শিবিরে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। পাঁচজন পাচারকারীর বিরুদ্ধে মামলা করে কক্সবাজার আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন