সাবেক সাংসদ আউয়াল ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

বিজ্ঞাপন
default-image

পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল ও তাঁর স্ত্রী লায়লা পারভীনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। খাসজমি দখলে নিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভবন নির্মাণ, অর্পিত সম্পত্তিতে নিজের নামে ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা এবং সরকারি পুকুর ভরাট করে দখলে নেওয়ার অভিযোগে তিনটি মামলা হয়।

আজ সোমবার দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের সমন্বিত বরিশাল জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক দেবব্রত মণ্ডল। তিনি বলেন, দুদকের সমন্বিত কার্যালয়ে দায়ের হওয়া এ মামলা তিনটির বাদী ঢাকার দুদক কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. আলী আকবর। তিনটি মামলার মধ্যে একটিতে সাবেক সাংসদ এ কে এম এ আউয়ালের স্ত্রী লায়লা পারভীনকেও আসামি করা হয়েছে।

মামলায় উভয়ের স্থায়ী ঠিকানা দেখানো হয়েছে পিরোজপুর জেলা সদরের পাড়েরহাট রোড। এ ছাড়া তাঁদের বর্তমান ঠিকানা দেখানো হয়েছে ঢাকার আদাবর।

মামলার বিবরণে জানা যায়, পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে সরকারি খাসজমি ভুয়া ব্যক্তিদের নামে বন্দোবস্ত দেখিয়ে এ কে এম এ আউয়াল ও তাঁর স্ত্রী লায়লা পারভীন ওই জমিতে একটি দ্বিতল ভবন নির্মাণ করেন। এ কারণে এই দম্পতির বিরুদ্ধে কমিশনের অনুমোদনক্রমে মামলা হয়।

অপর মামলায় বলা হয়েছে, পিরোজপুর শহরের রাজার পুকুর নামে পরিচিত ৪৪ শতক সরকারি খাসজমির চারদিকে দেয়াল নির্মাণ করে দখলে নেন সাবেক সাংসদ আউয়াল। এ কারণে মামলাটি হয়।

এ ছাড়া আরেকটি মামলা হয়েছে অর্পিত সম্পত্তি লিজ নিয়ে শর্ত ভঙ্গ করে এবং লিজের অর্থ পরিশোধ না করে নিজের নামে আউয়াল ফাউন্ডেশন ভবন গড়ে তোলার অভিযোগে।

দুদকের সমন্বিত বরিশাল জেলা কার্যালয়ের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বলেন, পৃথক অভিযোগ পাওয়ার পর প্রাথমিক অনুসন্ধান করে অভিযোগগুলোর সত্যতা পাওয়া যায়। এর ভিত্তিতে আজ মামলা তিনটি করা হয়। মামলার নথিগুলো এখন বিধি অনুযায়ী বিশেষ জেলা জজ আদালতে যাবে। পরবর্তী সময়ে অধিকতর তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন