সিঁধ কেটে ঘর থেকে শিশুকে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, রোববার রাতে বাবা-মায়ের সঙ্গে ঘুমিয়ে থাকা ৫ বছরের শিশুকে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে তুলে নিয়ে যান হোসেন আলী। পরে শিশুটি ধর্ষণের শিকার হয়।

বিজ্ঞাপন
default-image

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে পাঁচ বছর বয়সী শিশুকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। শিশুটির বাবা সোমবার রাতে করিমগঞ্জ থানায় মামলাটি করেন। রোববার রাতে শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরের দিন সকালে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। শিশুটিকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

যার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ, সেই আলী হোসেন (৪৫) গাঢাকা দিয়েছেন। পুলিশের দাবি, আলী হোসেনের বিরুদ্ধে শিশু ও নারীদের যৌন নির্যাতনের একাধিক অভিযোগ আছে।


পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, রোববার রাতের খাবার শেষে শিশুটি নিজেদের ঘরে বাবা-মায়ের সঙ্গে ঘুমিয়ে ছিল। রাত সাড়ে ১২টার দিকে আলী হোসেন সিঁধ কেটে তাদের ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত শিশুটিকে তুলে নিয়ে যান। পরে শিশুটি ধর্ষণের শিকার হয়। শিশুটির চিৎকার শুনে গ্রামের এক নারী ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যান। পরে ওই নারী সবাইকে জানান, তিনি ঘটনাস্থলে আলী হোসেনকে দেখেছেন। শিশুটিকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে শিশুটি সেখানে চিকিৎসাধীন আছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

করিমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মমিনুল ইসলাম এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আলী হোসেনকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন