default-image

মেজর (অব.) সিনহা হত্যা মামলায় কক্সবাজারের বাহারছড়া এলাকার তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তাঁরা সবাই সিনহা হত্যার পর পুলিশের করা মামলার সাক্ষী।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখা এ খবর জানিয়েছে।

র‌্যাব জানিয়েছে, আদালতের কাছে তারা এই তিনজনে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন মো. নুরুল আমিন, মো. আয়াছ ও মো. নিজাম উদ্দিন।

মো. নুরুল আমিন টেকনাফের মারিশবুনিয়ায় কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সদস্য। গত ৩১ জুলাই সিনহা হত্যাকাণ্ডের পর পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় মামলা করে।

ওই মামলায় টেকনাফ থানার উপপরিদর্শক নন্দদুলাল রক্ষিত বলেন, কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সদস্য নুরুল আমিন সে রাতে মুঠোফোনে ফাঁড়ির ইনচার্জকে জানান, কয়েকজন ডাকাত পাহাড়ে ছোট ছোট টর্চলাইট জ্বেলে এদিক–সেদিক হাঁটাহাঁটি করছে। এরপর নিজামউদ্দিন মাইকে ডাকাত এসেছে বলে ঘোষণা দেন ও গ্রামবাসীকে একত্র হতে বলেন। তাঁরা নেমে এসে মেরিন ড্রাইভ দিয়ে কক্সবাজার যাওয়ার সময় নুরুল আমিন ফোনে বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ লিয়াকত আলীকে খবর দেন।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, গ্রেপ্তার তিনজন ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন।

মেজর (অব.) সিনহার বোন শাহরিয়া শারমিন ফেরদৌসের করা হত্যা মামলায় এই নিয়ে ১০ জন গ্রেপ্তার হলেন।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আশিক বিল্লাহ জানান, এই হত্যাকাণ্ডে কার কী দায়, রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদের পর সে সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0