সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় দুর্বৃত্তদের হাতে এনামুল হক (১৪) নামের এক স্কুলছাত্র খুন হয়েছে। কোম্পানীগঞ্জের কালিবাড়ি উচ্চবিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র এনামুল পূর্ব ইসলামপুর ইউনিয়নের পুরান মেঘেরগাঁও গ্রামের আলী আমজদের ছেলে। কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলায় গতকাল বুধবার রিমা আক্তার নামের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
গত মঙ্গলবার মধ্য রাতে দুর্বৃত্তরা এনামুলকে হত্যা করে লাশ বাড়ির সামনের ধানখেতে ফেলে রেখে যায়। রাতেই তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। পরিবার ও এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, এনামুল তাদের বাড়ির পাশে একটি মুদি দোকানে রাতে থাকত। মঙ্গলবার রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে সে দোকানেই ঘুমাতে যায়। ধারণা করা হচ্ছে, পথেই মারধর করে ফেলে রাখলে, সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তার শরীরে জখমের চিহ্ন রয়েছে।
সম্প্রতি এনামদের প্রতিবেশী একটি পক্ষের সঙ্গে ঝগড়ার সূত্র ধরে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশকে জানানো হয়েছে। কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি দেলওয়ার হোসেন জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এনামের পরিবারের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে হত্যাকারীদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।
এদিকে কিশোরগঞ্জের ভৈরবের শিমুলকান্দি ইউনিয়নের গোছামারা পূর্বপাড়া গ্রাম থেকে গতকাল বুধবার বিকেলে রিমার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। রিমা এবার ভৈরব কে বি পাইলট উচ্চবিদ্যালয়ের মানবিক শাখা থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছিল।
পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গতকাল দুপুর ১২টার দিকে গোছামারা পূর্বপাড়ার রহমত আলীর মেয়ে রিমার লাশ ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলতে দেখে তার ছোট বোন জান্নাত। পরে পরিবারের অন্য সদস্যরা এসে রিমাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। চিকিৎসকেরা জানান, হাসপাতালে আনার আগেই রিমার মৃত্যু হয়। পুলিশ রিমার ঘর থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করেছে। মায়ের উদ্দেশ্যে ওই চিরকুটে লেখা ছিল ‘আম্মা আমাকে ক্ষমা করে দিও। আমার নিজের জীবন নিজেই শেষ করে দিলাম। এই জন্য বাড়ির অন্য কাউকে দোষারোপ করো না।’
ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবু তাহের বলেন, চিরকুটটি রিমার হাতে লেখা কি না, তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। এ জন্য তার ব্যবহৃত বেশ কিছু খাতা নিয়ে আসা হয়েছে। এটি আত্মহত্যা কি না, তা ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন ছাড়া বলা যাচ্ছে না।
তবে রিমার বাবা রহমত আলী বলেন, সাধারণ একটি বিষয় নিয়ে কয়েক দিন আগে পরিবারের অন্য সদস্যরা রিমা ও তার মাকে গালমন্দ করেছিলেন।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন