default-image

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে তরুণী ধর্ষণ মামলার এজাহাভুক্ত আসামি ছাত্রলীগ কর্মী মাহফুজুর রহমান ওরফে মাসুমের (২৫) পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার দুপুরে মহানগরের শাহপরান থানা-পুলিশ তাঁকে সিলেটের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে। শুনানি শেষে বিচারক আবুল কাশেম তাঁর পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ সময় আসামির পক্ষে কোনো আইনজীবী শুনানিতে অংশ নেননি।
আদালতের সরকারি কৌঁসুলি মাহফুজুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করলে বিচারক পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। বাদীপক্ষে স্বপ্রণোদিত হয়ে শতাধিক আইনজীবী অংশ নিলেও আসমিপক্ষে কোনো আইনজীবী অংশ নেননি।

বিজ্ঞাপন

ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার ছয় আসমির মধ্যে মাহফুজুরই একমাত্র এমসি কলেজের নিয়মিত শিক্ষার্থী। তিনি ইংরেজি (অনার্স) বিষয়ে চতুর্থ বর্ষে অধ্যয়নরত। তাঁর নামে ছাত্রাবাসে সিট বরাদ্দ ছিল। গত শুক্রবার ধর্ষণের ঘটনার পর মামলা হওয়ায় কলেজ কর্তৃপক্ষ ছাত্রাবাসে সিট বরাদ্দ বাতিল করেন। মাহফুজুর ধর্ষণকাণ্ডের পর থেকে পলাতক ছিলেন। গত সোমবার রাত প্রায় ১১টায় সিলেটের হরিপুর থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মামলার এজাহারে তিনি ৬ নম্বর আসামি।
এজাহারভুক্ত ছয় আসামির মধ্যে সবাই গ্রেপ্তার হয়েছে। এর মধ্যে দুজন সন্দেহভাজন। সবাইকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব তারেকুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে।
শাহপরান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, আজ বুধবার থেকে রিমান্ড নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হবে।

মন্তব্য পড়ুন 0