default-image

সিলেট সদর উপজেলার দলইপাড়া গ্রামে প্রেমলতা বাউরি নামের এক নারী খুন হয়েছেন। পুলিশ বলছে, তাঁর ছেলে দীপু বাউরি (৩০) লোহার পাত দিয়ে পিটিয়ে তাঁর মাকে খুন করেছেন। ঘটনার পর থেকেই তিনি পলাতক আছেন। গতকাল সোমবার রাত ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দীপু ও তাঁর মা দলইপাড়া এলাকার একটি চা-বাগানে থাকতেন। দীপুর ছোট ভাই আছে। তিনি অন্যত্র থাকেন। কোনো একটি বিষয় নিয়ে গতকাল রাতে দীপুর সঙ্গে তাঁর মা প্রেমলতার বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে দীপু একটি লোহার পাত দিয়ে তাঁর মায়ের মাথায় আঘাত করেন। এতে প্রেমলতা ঘটনাস্থলেই মারা যান। ঘটনার পর প্রেমলতার প্রতিবেশীরা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে সিলেটের এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। আজ মঙ্গলবার তাঁর ময়নাতদন্ত হবে।

সিলেট মহানগরের শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল কাইয়ূম চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, ‘দীপু ঘটনার পরপরই পালিয়ে গেছেন। তাঁকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0