পূর্ব সুন্দরবনে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্দেহভাজন এক বনদস্যু নিহত হয়েছে।

আজ শুক্রবার ভোরে চাঁদপাই রেঞ্জের মৃগমারী খালে এই ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয় বলে র‍্যাবের ভাষ্য।

র‍্যাবের দাবি, নিহত ব্যক্তির নাম আলম খান (৪২)। তিনি বনদস্যু আলম বাহিনীর প্রধান। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

র‍্যাব-৮ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল ফরিদুল আলমের ভাষ্য, মৃগমারী খালে বনদস্যু আলম বাহিনীর সদস্যরা অবস্থান করছে বলে জানা যায়। র‍্যাব-৮ এর একটি টহলদল আজ ভোরে সেখানে অভিযানে যায়। উপস্থিতি টের পেয়ে বনদস্যুরা র‍্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষায় র‍্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। দুই পক্ষের মধ্যে প্রায় আধঘণ্টা ধরে বন্দুকযুদ্ধ হয়। পরে ওই এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে একজনের গুলিবিদ্ধ লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়। স্থানীয় জেলেরা লাশটি শনাক্ত করে।

র‍্যাবের ভাষ্য, নিহত আলমের বাড়ি বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলায় বলে জেলেরা প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে।

নিহত ব্যক্তির পারিবারিক পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি র‍্যাব।

র‍্যাবের দাবি, ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র, ধারালো অস্ত্র ও কয়েক শ গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

র‍্যাব জানায়, নিহত ব্যক্তির লাশ ও উদ্ধার হওয়া অস্ত্রশস্ত্র মংলা থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন