default-image

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে ৫ বছরের এক শিশুকে গলা টিপে হত্যার পর পাশের ডোবাতে লুকিয়ে রেখেছিলেন এক গৃহকর্মী। ঘটনার দুই ঘণ্টার মধ্যে হত্যাকারী গৃহকর্মীকে ধরিয়ে দিল তারই সাত বছরের সন্তান।

ঘটনাটি ঘটেছে আজ শনিবার উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের বলশিদ গ্রামের তালুকদার বাড়িতে। এ ঘটনায় বিকেলে শাহরাস্তি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহত শিশুর মা।

মামলার এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আজ বেলা ১১টার দিকে বলশিদ তালুকদার বাড়ির মৃত আক্তার হোসেনের মেয়ে জান্নাতুল মাওয়াকে (৫) বাড়ির গৃহকর্মী ফাতেমা আক্তার (২৫) গলা টিপে হত্যার পর হাত-পা বেঁধে পাশের একটি ডোবায় লুকিয়ে রাখেন। বিষয়টি ফাতেমার ৭ বছরের একমাত্র ছেলে আরমান দেখে ফেলে। জান্নাতুল মাওয়ার নানি আনোয়ারা বেগমসহ বাড়ির লোকজন বিষয়টি আরমানের কাছ থেকে জানতে পেরে ওই ডোবা থেকে শিশু জান্নাতুলের লাশ উদ্ধার করেন। পুলিশ এসে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ থানায় নিয়ে যায়।

শাহরাস্তি থানার ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বলেন, হত্যার বিষয়ে ফাতেমা মুখ না খুললেও তার ছেলে আরমান এ হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়েছে। ফাতেমাকে আটক করা হয়েছে। থানায় জান্নাতুল মাওয়ার মা কাজল রেখা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0