হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার গোলগাঁও গ্রামে গতকাল সোমবার পাহাড়ের মাটি কাটতে গিয়ে মাটিচাপায় দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন একজন।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন আবদুল গনি (৫০) ও জুয়েল মিয়া (১৫)। তাঁদের বাড়ি বাহুবল উপজেলার গোলগাঁও গ্রামে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন ধরে উপজেলার বৃন্দাবন চা-বাগানলাগোয়া বিভিন্ন পাহাড়ের মাটি কেটে আসছেন শ্রমিকেরা। গতকাল দুপুরে ওই এলাকার দাসিন মিয়ার মালিকানাধীন পাহাড়ি ভূমির মাটি খুঁড়ে সুড়ঙ্গ তৈরি করেন শ্রমিকেরা। তাঁরা এ সুড়ঙ্গে ঢুকে সাদা মাটি সংগ্রহ করছিলেন। এ সময় হঠাৎ পাহাড়ধসে চাপা পড়েন তিনজন শ্রমিক। পরে এলাকাবাসী মাটি সরিয়ে আবদুল গনি ও জুয়েল নামে দুজন শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেন। আর আহত অবস্থায় জুনায়েদ (২৫) নামে এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়। তিনি ধসে পড়া ভূমির মালিক দাসিন মিয়ার ছেলে। জুনায়েদকে গুরুতর অবস্থায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশ দুটি উদ্ধার করে।

এলাকার বাসিন্দা শামছু মিয়া জানান, এ এলাকার ভূমিতে সাদা মাটি রয়েছে। শ্রমিকেরা সাদা মাটি সংগ্রহ করতে গিয়ে পাহাড় কেটে গর্ত করেন। গতকাল নয়-দশ হাত গভীর গর্ত তৈরি করতে গিয়ে এ দুজন শ্রমিক মাটিচাপায় মারা গেছেন।

বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলী ফরিদ জানান, অবৈধভাবে মাটি কাটতে গিয়ে এ দুজন মারা গেছেন। তাঁরা ব্যক্তিগত ভূমি থেকে এ মাটি কাটলেও পরিবেশ আইনে পাহাড় কাটা নিষিদ্ধ। এ বিষয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন