চাঁদপুরের হাইমচর থানার পুলিশ কনস্টেবল মোশারফ হোসেন (৩২) জেলেদের হামলায় নিহত হওয়ার ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. মহসীনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার তাঁকে রাজশাহী রেঞ্জে বদলির আদেশ দেওয়া হয় বলে জানান চাঁদপুর জেলার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির। এ নিয়ে ওই থানার চারজন পুলিশ সদস্যকে একই অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।

এর আগে গত ২৯ এপ্রিল হাইমচর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মকবুল হোসেন, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সুমন সরকার ও পুলিশ কনস্টেবল শাহাদাত হোসেনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়। হাইমচর থানার কনস্টেবল মোশারফ হোসেন মেঘনায় জেলেদের হামলায় নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়িত্ব অবহেলায় অভিযোগে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়। তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

জানা যায়, গত ২৬ এপ্রিল পরোয়ানাভুক্ত মাদক মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য হাইমচর থানার এএসআই সুমন সরকারের নেতৃত্বে ৩ পুলিশ ইঞ্জিনচালিত নৌকায় মেঘনার পশ্চিম পাড়ে নীলকমল ইউনিয়নের চরকোড়ালিয়া এলাকায় অভিযান চালায়। রাতের এই অভিযানে লাইফ জ্যাকেট না নিয়ে এবং পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য না নিয়ে উত্তাল মেঘনা পাড়ি দেন অভিযানকারীরা। এ সময় সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় জাটকা ধরায় ব্যস্ত জেলেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এতে পুলিশ সদস্য মোশারফ হোসেন নিখোঁজ হন। ঘটনার দুই দিন পর ২৮ এপ্রিল বরিশালের হিজলা এলাকায় নিখোঁজ মোশারফের লাশ ভেসে ওঠে। এ ঘটনায় মোশারফ হোসেনের স্ত্রী হাইমচর থানার পুলিশ কনস্টেবল শামীমা আক্তার বাদী হয়ে ২৭ এপ্রিল একটি হত্যা মামলা করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন