default-image

খুলনা করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক গৃহবধূকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় হাসপাতালের এক কর্মীকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

অব্যাহতি পাওয়া কর্মীর নাম নজরুল ইসলাম। তিনি খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে নিযুক্ত ওয়ার্ডবয় হিসেবে কাজ করছিলেন। নুরনগর এলাকায় অবস্থিত এই হাসপাতাল পরিচালনা করেছ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি নমুনা পরীক্ষায় ওই গৃহবধূ (২৬) করোনা ‘পজিটিভ’ হন। এরপর ৬ জুন তিনি খুলনা করোনা হাসপাতালে ভর্তি হন। শুরু থেকেই তাঁকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন ওয়ার্ডবয় নজরুল ইসলাম। বিভিন্ন অজুহাতে তাঁর কাছে আসার চেষ্টা করতেন। সর্বশেষ ঘটনাটি ঘটে গত শনিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে। নজরুল প্রয়োজনের কথা বলে ওই গৃহবধূকে কিছুটা নির্জন স্থানে ডেকে নিয়ে যৌন হয়রানি করেন। কোনোমতে নিজেকে রক্ষা করে গৃহবধূ ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালের দায়িত্বরত নার্সদের বিষয়টি জানান।

ওই গৃহবধূকে গতকাল সোমবার ছাড়পত্র দিয়ে হোম আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। তাঁর স্বজনদের মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে ওয়ার্ডবয় নজরুল ইসলামকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এর বাইরে কারও পক্ষ থেকে থানায় মামলা বা অন্য কোনো আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক মুন্সী মো. রেজা সেকেন্দার। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ওই গৃহবধূ বা তাঁর স্বজনেরা লিখিত কোনো অভিযোগ দেননি। স্বজনদের কাছ থেকে মৌখিক অভিযোগ পেয়ে ওয়ার্ডবয়কে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি এড়াতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0