২৫ বছর আগে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে করা মামলায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র আহসান হাবিব কামালসহ পাঁচজনকে সাত বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে সাবেক মেয়র ও দণ্ডপ্রাপ্ত অপর এক ঠিকাদার মো. জাকির হোসেনকে এক কোটি টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার বিকেলে বরিশাল বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক মো. মহসিনুল হক পাঁচ আসামির উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

এই রায়ের বিরুদ্ধে তাঁরা উচ্চ আদালতে আপিল করবেন
মহসিন মন্টু, সাবেক মেয়রের আইনজীবী

আহসান হাবিব কামাল বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক মৎস্যজীবীবিষয়ক সম্পাদক।

দণ্ডপ্রাপ্ত অপর চারজন হলেন তৎকালীন বরিশাল পৌরসভার সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইছাহাক, তৎকালীন সহকারী প্রকৌশলী (সিটি করপোরেশনের বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী) খান মো. নুরুল ইসলাম, পৌরসভার সাবেক উপসহকারী প্রকৌশলী মো. আবদুস ছত্তার ও  ঠিকাদার মো. জাকির হোসেন।

বিজ্ঞাপন

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. হারুন অর রশিদ মামলার এজাহারের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, ১৯৯৫-৯৬ সালে তৎকালীন বরিশাল পৌর শহরের টিঅ্যান্ডটির ভূগর্ভস্থ কেবল স্থাপনের সময় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামতের জন্য পৌরসভা কর্তৃপক্ষকে ৪৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়। কিন্তু কোনো টেন্ডার না ডেকে এবং রাস্তার কাজ না করে হাই ইয়ং নামের কথিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নামে চারটি চেকের মাধ্যমে ৩৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন আসামিরা। বাস্তবে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কোনো অস্তিত্ব পায়নি দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

এ ঘটনায় ২০১০ সালে ১১ অক্টোবর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশনের উপপরিচালক মো. আবদুল বাসেত বাদী হয়ে পাঁচজনের বিরুদ্ধে বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি মামলা করেন। অভিযোগের তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ১৯ জুলাই আহসান হাবিব কামালসহ পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে এই মামলার অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়। পরে বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতে ২৬ জনের মধ্যে ২২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বিচারক রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার পর গতকাল সন্ধ্যায় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে নেওয়া হয়।

সাবেক মেয়রের আইনজীবী মহসিন মন্টু বলেন, এই রায়ের বিরুদ্ধে তাঁরা উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

মন্তব্য পড়ুন 0