বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ বলছে, মঙ্গলবার দিবাগত রাতে নাটোরের বড়াইগ্রাম থানার আটোয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরিফকে গ্রেপ্তার করা হয়। গোয়েন্দা লালবাগ বিভাগের অস্ত্র উদ্ধার ও মাদক নিয়ন্ত্রণ টিমের সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. ফজলুর রহমান বলেন, গত ২৩ আগস্ট মোহাম্মদপুর থানার রায়েরবাজার এলাকা থেকে মোছা. পারভীন নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। ওই সময় তাঁর কাছ থেকে শাহী মরিচের গুঁড়া ও শাহী হলুদের গুঁড়ার প্যাকেটে বিশেষভাবে প্যাক করা ২২০ গ্রাম হেরোইন জব্দ করা হয়। ওই হেরোইনের মূল মালিক মো. আরিফ। এ ঘটনায় রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা ‍হয়েছিল। আরিফ ওই মামলার আসামি।

পুলিশ আরও জানায়, মামলা করার পর আরিফ গ্রেপ্তার এড়ানোর লক্ষ্যে নাটোরের বড়াইগ্রাম থানা এলাকায় আত্মগোপনে ছিলেন। আরিফ পাইকারি মাদকদ্রব্য (হেরোইন) ব্যবসায়ী। তিনি দীর্ঘদিন ধরে রাজশাহীর সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে হেরোইন নিয়ে এসে ঢাকা ও এর আশপাশের এলাকা এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করতেন।

গ্রেপ্তার আরিফের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগরী এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন থানায় মোট ২৭টি মাদক মামলার তথ্য পাওয়া গেছে।

অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন