সিলেট নগরে গতকাল রোববার ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করার সময় ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন পুলিশের এক সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই)। বিমানবন্দর সড়কের মজুমদারি এলাকায় দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।
আহত আরিফ হোসেনকে (৩২) সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে আহত হওয়ার যন্ত্রণার চেয়ে ছিনতাইকারীকে ধরতে না পারায় আক্ষেপ করেন তিনি। ‘ছুরি না মারলে কিন্তু ধরি ফেলছিলাম!’ এভাবেই প্রথম আলোকে বলছিলেন আরিফ।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্র জানায়, সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে নগরের আম্বরখানা মোড় পর্যন্ত বিমানবন্দর সড়ক। গতকাল দুপুরে নগরের প্রাইম ব্যাংক থেকে টাকা তুলে বিমানবন্দরের উদ্দেশে সিএনজিচালিত অটোরিকশা নিয়ে যাচ্ছিলেন জিএমজি কার্গো কোম্পানির চালক জীবন আলী (৫০)। মজুমদারি এলাকায় পৌঁছামাত্র তিনটি মোটরসাইকেলে থাকা আটজন ছিনতাইকারী অটোরিকশার গতিরোধ করে জীবন আলীর হাতে ও পিঠে ছুরিকাঘাত করে। এরপর ব্যাগে থাকা পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।
এ সময় ওই এলাকায় কর্তব্যরত ছিলেন বিমানবন্দর থানার এএসআই আরিফসহ আরও তিন সদস্যের পুলিশ দল। ছিনতাইয়ের কথা শুনে তিনি একাই তাঁদের ধাওয়া করেন। একপর্যায়ে টাকার ব্যাগ হাতে থাকা ছিনতাইকারীকে জাপটে ধরলে আরিফের কোমরে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় সে।
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (গণমাধ্যম) মো. রহমতুল্লাহ জানান, ছিনতাইকারীদের ধরতে ওই এলাকায় অভিযান চলছে।
১৩ লাখ টাকা ছিনতাই: পাঁচ লাখ টাকা ছিনতাই হওয়ার প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টার মাথায় নগরের মেন্দিবাগ এলাকায় মোহাম্মদিয়া আরএকে সিরামিক নামের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের আরেকটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। ছিনতাইকারীরা এ সময় ১৩ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, ওই দোকানে মালামাল বিক্রির ১৩ লাখ ৩৩ হাজার টাকা স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ায় জমা দেওয়ার জন্য ব্যাংক থেকে ফোন করে একজন গানম্যানসহ প্রাইভেট কার নিয়ে আসা হয়। গাড়িতে করে যাওয়ার পথে দুই দিক থেকে দুটি মোটরসাইকেলে ছিনতাইকারীরা গাড়ির গতিরোধ করে ভাঙচুর শুরু করে। পরে টাকার ব্যাগ নিয়ে যাওয়ার সময় রিভলবার উঁচিয়ে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায় তারা। খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার ওসিসহ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে দুই রাউন্ড গুলিসহ একটি রিভলবার উদ্ধার করে।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন