default-image

মাদকদ্রব্য হিসেবে ঘোষিত বিপুল পরিমাণ 'টাপেন্টাডল'সহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। গত সোমবার রাতে ফারুক হোসেন (৪৫) নামের ওই ব্যক্তির কেরানীগঞ্জের নজরগঞ্জে বাসায় অভিযান চালিয়ে ১২ কার্টন টাপেন্টাডলসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সিআইডির মেট্রো দক্ষিণের বিশেষ পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, সরকার ব্যথানাশক ওষুধ টাপেন্টাডলকে নিষিদ্ধ করার পর ফারুক তার বাসায় টাপেন্টাডল মজুত করেন। তিনি এসব ওষুধ মাদক সেবীদের বিক্রি করে আসছিলেন। ফারুক ও তার ভাই পুরান ঢাকার মিটফোর্ড এলাকার বিভিন্ন ওষুধের দোকানে টাপেন্টাডল বিক্রি করেন। ফারুকের ভাইকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ফারুকের বিরুদ্ধে কেরানীগঞ্জ থানায় মাদকদ্রব্য আইনে মামলা করা হয়েছে। উদ্ধার করা টাপেন্টাডলের দাম সাড়ে তিন লাখ টাকা।

সিআইডির ওই কর্মকর্তা বলেন, গতকাল মঙ্গলবার ফারুককে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে পাঠানো হয়। শুনানি শেষে আদালত দুদিন তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন।

গত ৮ জুলাই ব্যথানাশক হিসেবে ব্যবহৃত টাপেন্টাডল ওষুধকে মাদকদ্রব্য হিসেবে ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে সরকার। এই ওষুধকে মাদকের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করে আসছিলেন মাদকসেবীরা।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0