যশোর শহরের বেজপাড়ায় গত মঙ্গলবার রাতে ডলার হোসেন (২৭) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। স্বজনদের অভিযোগ, কয়েকজন দুর্বৃত্ত বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে তাঁকে হত্যা করেছে। তবে পুলিশ বলছে, তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ডলার ডাকাতির প্রস্তুতিকালে স্থানীয় লোকজনের পিটুনিতে মারা গেছেন।
নিহত ডলার শহরের আশ্রম সড়কের মোসলেম উদ্দিনের ছেলে। ডলারের প্রথম স্ত্রী নাজমা বেগম ও খালাতো বোন নাসিমা খাতুন গতকাল বুধবার যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গের সামনে সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, ডলার সম্প্রতি দ্বিতীয় বিয়ে করে বেজপাড়া তালতলা এলাকায় থাকতেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে স্থানীয় সাত থেকে আটজন দুর্বৃত্ত তাঁকে ওই বাড়ি থেকে ধরে পাশের চোপদারপাড়া এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে হাত-পা বেঁধে মুখের ভেতর গামছা দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে। মৃত্যুর এক ঘণ্টা পর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।
যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কে এম আরিফুল হক প্রথম আলোকে জানান, বেজপাড়ার এক বাড়িতে ডাকাতির প্রস্তুতি নেওয়ার সময় স্থানীয় বাসিন্দারা ডলারকে ধরে গণপিটুনি দেন। গুরুতর অবস্থায় পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।
আরিফুল হক জানান, ডলার পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। তাঁর বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতিসহ কোতোয়ালি থানায় আটটি মামলা আছে।
কোতোয়ালি থানা সূত্রে জানা গেছে, ময়নাতদন্ত শেষে ডলারের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ডলারকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় অজ্ঞাতপরিচয়ের কয়েকজনকে আসামি করে পুলিশ একটি হত্যা মামলা করেছে। আর বেজপাড়া এলাকার বাসিন্দা গোলাম মোস্তফা নিহত ডলারের বিরুদ্ধে ডাকাতির প্রস্তুতির অভিযোগে আরেকটি মামলা করেছেন।

বিজ্ঞাপন
অপরাধ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন