default-image

‘পাখি’ নামের মেয়েদের বিশেষ একধরনের পোশাক না পেয়ে কয়েক দিন আগে আত্মহত্যা করে চাঁপাইনবাবগঞ্জের এক কিশোরী। কেবল একটি পোশাকের জন্য মেয়েকে এভাবে হারানোর বিষয়টি কোনোভাবেই মানতে পারছিলেন না তার মা-বাবা। বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাঁদের।
এ ঘটনার রেশ কাটতে না-কাটতেই আজ রোববার গাইবান্ধায় প্রায় একই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। পাখি না পাওয়ার কষ্টে আত্মহত্যা করেছে নূরজাহান খাতুন নামের আরেক কিশোরী।
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের মাস্তা গ্রামে আজ সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত নূরজাহান মাস্তা গ্রামের নূর আলমের মেয়ে।
পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানায়, ঈদ উপলক্ষে নূরজাহান মা ও বড় বোনের কাছে পাখি পোশাক চায়। ওই পোশাক কিনে না দেওয়ায় নূরজাহানের সঙ্গে তার মা ও বোনের বাগবিতণ্ডা হয়। কষ্টে-অভিমানে সকাল ১০টার দিকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে নূরজাহান।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

ভারতের স্টার জলসা চ্যানেলের ‘বোঝে না সে বোঝে না’ সিরিয়ালের একটি চরিত্রের নাম পাখি। এই চরিত্রের পরনে থাকা বিশেষ একধরনের থ্রি-পিস এবারের ঈদে বাংলাদেশের বাজারে ব্যাপক বিক্রি হয়। ভারত থেকে আসা এই ‘পাখি’ থ্রি-পিসে বাংলাদেশের বাজার সয়লাব হয়ে গেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0