default-image

কিশোরী মেয়ে ও মেয়ের বন্ধুকে ঘরে আটকে রেখেছিলেন বাবা। কোনোভাবে আটকে রাখা কিশোরকে উদ্ধার করতে পারছিলেন না তার পরিবার। শেষে ‘৯৯৯’ নম্বরে ফোন করা হয়। পুলিশ ঘরের তালা ভেঙে অবরুদ্ধ কিশোর-কিশোরীকে উদ্ধার করে। থানায় নিয়ে তাদের পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রাজশাহীর বাগমারায়।

পুলিশ ও এলাকার লোকজন সূত্রে জানা যায়, বাগমারার নবম শ্রেণির এক ছাত্রের (১৪) সঙ্গে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীর (১৩) প্রেমের সম্পর্ক চলছে। গতকাল শনিবার সকালে ছেলেটি মেয়েটির বাড়িতে যায়। তারা একটি কক্ষে বসে গল্প করছিল। এ সময় কিশোরীর বাবাসহ পরিবারের সদস্যরা তাদের ঘরের ভেতরে রেখে বাইরে থেকে তালাবদ্ধ করে দেন। খবর পেয়ে কিশোরের পরিবার তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করে। কিন্তু উদ্ধার করতে না পেরে ‘৯৯৯’ নম্বরে ফোন করে কিশোরকে মুক্ত করার আকুতি জানানো হয়।

খবর পেয়ে বাগমারা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযোগের সত্যতা পায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কিশোরীর বাবা চাবি নিয়ে বাড়ি থেকে চলে যান। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ এলাকার লোকজনের সহায়তায় ঘরের তালা ভেঙে কিশোর-কিশোরীকে উদ্ধার করে বিকেলে থানায় নেওয়া হয়। রাতে অভিভাবকদের ডেকে তাদের জিম্মায় দেওয়া হয়।

বাগমারা থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) তরুণ কুমার বলেন, ‘তারা একজন আরেকজনকে ভালোবাসে। ঘটনার দিন ছেলেটিকে পাওনা টাকা দেওয়ার জন্য মেয়েটি ডেকে নিয়ে এসেছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছে। ছেলেটিকে আটকে রেখে মেয়ের পরিবার বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিল।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0