বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকেলে তাঁরা এই বানরের খবর পান। পরে মৌলভীবাজার সদরের রেঞ্জ কর্মকর্তা গোলাম ছারওয়ারসহ বন বিভাগের লোকজন রাজনগর উপজেলার উত্তরভাগ ইউনিয়নের সুপ্রাকান্দি থেকে বানরটি উদ্ধার করে নিয়ে আসেন। উদ্ধারের সময়ও বানরটি অচেতন ছিল। পরে রাতেই বানরটিকে জেলা সদরে প্রাণিসম্পদ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে বিভাগীয় বন কর্মকর্তার বর্ষিজুরা ইকোপার্কের প্রধান কার্যালয়ে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বানরটি কিছু খেতে পারছে না।

গোলাম ছারওয়ার শনিবার বিকেলে বলেন, বানরটি হয়তো বাড়িঘরের আশপাশে এসেছিল। লোকজন ইট-পাথর দিয়ে আঘাত করায় ঠোঁটের এক পাশের মাংস খসে পড়েছে। বুকে ক্ষত হয়েছে। না খেতে পেয়ে দুর্বল হয়ে গেছে।

বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, বানরটির অবস্থা আশঙ্কাজনক। চিকিৎসকের পরামর্শমতো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে, এটি পরাজিত দলনেতা হতে পারে। দলচ্যুত হয়ে লোকালয়ে চলে আসে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন