default-image

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বুধবার দুপুরে সিএনজিচালিত অটোরিকশার ধাক্কায় এক বৃদ্ধ নারী আহত হয়েছেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে স্থানীয় যুবকেরা অটোরিকশাচালক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকসহ দুজনকে মারপিট করেছেন।

এ ঘটনার প্রতিবাদে অটোরিকশাচালকেরা বেলা আড়াইটার দিকে কমলগঞ্জের শমশেরনগর-কুলাউড়া সড়কের বিএএফ শাহীন কলেজের সামনে সড়ক অবরোধ করেন। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে অবরোধ তুলে নিলে বিকেল চারটা থেকে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

অটোরিকশার ধাক্কায় আহত ওই বৃদ্ধ নারীর নাম মোমেনা বেগম (৬৫)। তিনি উপজেলার পতনউষার ইউনিয়নের চক কবিরাজি গ্রামের মৃত সরফর আলীর স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার দুপুরে বৃদ্ধ মোমেনা বেগম সড়কের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় উপজেলার পতনউষার ইউনিয়নের ওসমানগড় এলাকায় দ্রুতগামী সিএনজিচালিত অটোরিকশার ধাক্কায় গুরুতর আহত হন। এ সময় এলাকাবাসী এসে তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে স্থানীয় বাসিন্দা শাহীন মিয়ার নেতৃত্বে একদল বিক্ষুব্ধ যুবক বেশ কয়েকটি অটোরিকশা আটকে রাখেন। খবর পেয়ে শমশেরনগর উত্তরবাজার সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজ মিয়া (৩৬) ও সদস্য মুক্তার দেওয়ান (৩৩) ঘটনাস্থলে যান। বিক্ষুব্ধ যুবকেরা ওই দুজনকে মারপিট করেন। এর প্রতিবাদে অটোরিকশাচালকেরা সড়ক অবরোধ করেন।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় অটোরিকশাচালক সমিতির সভাপতি মো. মোস্তফা মিয়া অভিযোগ করেন, পুলিশের উপস্থিতিতে ওসমানগড় এলাকায় চালকদের টেনেহিঁচড়ে মারধর করা হয়েছে। ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে টাকা ও মুঠোফোন। এ বিষয়ে কমলগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. সাজিদ আলী বলেন, অটোরিকশার ধাক্কায় বৃদ্ধার একটি পা ভেঙে গেছে। তিনি গুরুতর আহত অবস্থায় এখন মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার পরপরই স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে অটোরিকশার চালকেরা তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়লে মারামারির ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ি থেকে পুলিশ পাঠিয়ে দ্রুত সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করা হয়েছে বলে জানান কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আরিফুর রহমান । তিনি বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন