default-image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর (৬৭) গুরুতর আহত হয়েছেন। একই সঙ্গে সামান্য আঘাত পেয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুল হক, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সহিদ খালিদ জামিল খান ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) সাইফুল ইসলাম। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার শাহবাজপুর-শাহজাদাপুর গ্রামীণ সড়কের মলাইল হাওর এলাকায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা উল্টে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ইউএনও ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ চারজন গতকাল বিকেলে শাহজাদাপুর ইউনিয়নের মলাইশ এলাকার আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন করেন। এরপর শেষ বিকেলে তাঁরা চারজন ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিকশায় করে শাহবাজপুর-শাহজাদাপুর গ্রামীণ মাটির সড়ক দিয়ে মলাইল থেকে শাহজাদাপুরের দিকে যাচ্ছিলেন। ওই সড়কে আট লাখ টাকার মাটির সংস্কারকাজ চলছে। সেই কাজ পরিদর্শন করতে যাচ্ছিলেন তাঁরা। কিছুদূর যাওয়ার পর অটোরিকশাটি উল্টে যায়। তখন তাঁরা চারজনই অটোরিকশা থেকে পড়ে যান। এতে গুরুতর আহত হন রফিক উদ্দিন ঠাকুর। তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অন্য তিনজনও সামান্য আঘাত পেয়েছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. নোমান মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মাথায়, কোমরে ও পায়ে আঘাত পেয়েছেন। তাঁর তিনটি এক্স-রে করা হয়েছে। আঘাতগুলো গুরুতর। তাঁকে কিছুদিন বিশ্রামে থাকতে বলা হয়েছে। অন্যরা সুস্থ আছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন