default-image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের মুরাদপুর ইউনিয়নের দেলীপাড়া থেকে অপহৃত জামশেদ উদ্দীনকে জীবিত বা মৃত অবস্থায় ফিরে পেতে চায় তাঁর পরিবার। আজ শনিবার দুপুরে সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এই আকুতি জানিয়েছেন তাঁর স্ত্রী রুবি আক্তার। জামশেদ বিএনপির সমর্থক।

এ ঘটনায় সীতাকুণ্ড থানায় অপহরণের মামলাও করেছেন রুবি আক্তার। ওই মামলায় ১৮ জনকে আসামি করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে জামশেদের ভাই জয়নাল আবেদীন, ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি রাশেদুন নবী চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জামশেদের বাড়ি উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের হাসনাবাদ গ্রামে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার রাতে মো. জুয়েল (২৫) ও মো. সাইফুল্লাহ (২৭) নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁদের বাড়িও মুরাদপুর ইউনিয়নে।

বিজ্ঞাপন

অপহৃত জামশেদের ভাই জয়নাল আবেদীন বলেন, জামশেদ বিএনপির রাজনীতি করতেন। গত বুধবার রাতে মুরাদপুর ইউনিয়নে তাঁর নিজের বাড়িতে যান। সন্ধ্যা ছয়টার পর থেকে তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তাঁকে অপহরণ করা হয়েছে। এখন তাঁরা তাঁর ভাইকে ফিরে পেতে চান।

সীতাকুণ্ড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বণিক প্রথম আলোকে বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার দুজন জানিয়েছেন, জামশেদ তাঁদের সঙ্গে ছিলেন। কিন্তু এর বেশি তাঁরা কিছু বলেননি। শনিবার তাঁদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


লাশ উদ্ধারের গুঞ্জন
শনিবার সকালে উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের সাগর উপকূলে দুই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এমন সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে। দুপুরে সৈয়দপুরে একটি লাশ উদ্ধারের খবর ছড়িয়ে পড়ে। তবে বেলা একটায়ও এর সত্যতা নিশ্চিত হয়নি।
মুরাদপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহেদ হোসেন নিজামী বলেন, বিভিন্ন দিক থেকে তাঁর কাছেও বিষয়টি জানতে চেয়েছেন অনেকে। কিন্তু তিনি এ রকম কোনো বিষয় জানেন না।

মন্তব্য পড়ুন 0