default-image

রাজবাড়ীর বিভিন্ন এলাকায় আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে পাঁচটি ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় একটি ইটভাটার মালিককে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ছাড়পত্র না থাকা ও অবৈধভাবে ইটভাটা পরিচালনা করায় রাজবাড়ী সদর, কালুখালী ও পাংশা উপজেলায় পরিবেশ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ওই অভিযান চালানো হয়। এতে নেতৃত্ব দেন ঢাকা পরিবেশ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদেকুর রহমান।

গুঁড়িয়ে দেওয়া ভাটাগুলো হলো সদর উপজেলার ভবানীপুরের মেসার্স জামান ব্রিকস (জেডবি), মেসার্স নুরুল ইসলাম ব্রিকস (এনআইবি) ও চরলক্ষ্মীপুরের এসবিবি ব্রিকস, কালুখালীর বোয়ালিয়ার মেসার্স আরএনবি ও পাংশার জলাদিয়া এলাকায় কেএনবি। এর মধ্যে কেএনবিকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

বিজ্ঞাপন
অবৈধভাবে পরিচালিত ইটভাটার বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। অভিযান আরও চলবে।
এ এইচ এম রাশেদ, উপপরিচালক, ফরিদপুর পরিবেশ অধিদপ্তর

অভিযানের সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক এ এইচ এম রাশেদ, ফরিদপুর র‍্যাব-৮–এর মেজর জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। এতে সহযোগিতা করে র‍্যাব, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস।

ফরিদপুর পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক এ এইচ এম রাশেদ বলেন, ভাটাগুলো অবৈধভাবে পরিচালনা করা হচ্ছিল। এগুলোর পরিবেশ ছাড়পত্র নেই। ভাটাগুলোয় কাঠ পোড়ানো হয়। এগুলো নিষিদ্ধ এলাকায় অবস্থিত।

এ এইচ এম রাশেদ আরও বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ধারাবাহিকভাবে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। অবৈধভাবে পরিচালিত ইটভাটার বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। অভিযান আরও চলবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন