বিজ্ঞাপন

আজ সকালে নগরের কামারপাড়ায় ঢাকা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, যাত্রীদের মাস্ক পরার ব্যাপারে তদারকি করা হচ্ছে। বাসে ওঠার আগে প্রত্যেক যাত্রীর হাতে স্যানিটাইজার দেওয়া হয়।

হানিফ পরিবহনের ব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামান বলেন, অর্ধেক আসনে যাত্রী বসিয়ে বাস চালানো হচ্ছে। প্রথম দিন বাস চালুর জন্য তড়িঘড়ি করতে হয়েছে। এরপরও আজ সকালে কিছুটা কম যাত্রী নিয়ে বাস ছাড়তে হয়েছে। সকাল আটটা থেকে যেখানে এক ঘণ্টা পরপর বাস ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যেত, সেখানে বাস ও যাত্রী কম থাকায় দুই ঘণ্টা পরপর বাস ছাড়া হচ্ছে।

এদিকে সরকারি সিদ্ধান্ত মতে আসনসংখ্যার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে বাস চলাচল করবে। তবে ভাড়া ৬০ শতাংশ বেড়েছে। আগে রংপুর থেকে ঢাকার ভাড়া ছিল ৬০০ টাকা। এখন ভাড়া ৯৬০ টাকা। তবে যাত্রী কম থাকার কারণে ভাড়া ১৫০-২০০ টাকা কম নেওয়া হচ্ছে।

ঢাকাগামী যাত্রী জীবন চৌধুরী বলেন, ‘আসলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে সবার জন্য ভালো হয়। কিন্তু আমরা বাইরে চলাচল করলেও সেটা মানতে চাই না। বাসে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল হচ্ছে। বাসের বাড়া নিয়ে আমরা সন্তুষ্ট।’

এদিকে আন্তজেলার বাসগুলো কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে চলাচল করলেও খুব বেশি যাত্রী নেই। বাসস্ট্যান্ড থেকে বিভিন্ন বাসে পাঁচ-আটজন যাত্রী নিয়ে ছেড়ে যেতে দেখা যায়। এরপর মেডিকেল মোড়ে এসে বাস দাঁড়ালে সেখানে দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড় যাওয়ার জন্য কিছু যাত্রী বাসে ওঠে। তবে অনেক বাসে অর্ধেক আসনই পূরণ হয়নি।

দিনাজপুরগামী একটি বাসের শ্রমিক রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘আজ একেবারে যাত্রী কম। তবে বাস চলাচল শুরু হওয়ায় আমাদের বাড়ি খরচের টাকা তো উঠবে আপাতত। এতেই শান্তি।’

এ ছাড়া শহরের মডার্ন মোড়ে বগুড়া, রাজশাহী, পাবনা ও সিরাজগঞ্জ যাওয়ার জন্য বাসগুলোতে খুব একটা যাত্রী নেই। তবে অল্প কয়েকজন যাত্রী নিয়ে বাসগুলো গন্তব্যে ছুটছে।

এদিকে ট্রেনে যাত্রীর চাপ রয়েছে। আজ সকাল সাড়ে আটটায় রংপুরের ওপর দিয়ে কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। ঢাকায় যাওয়ার জন্য রংপুর থেকে ৫৫টি আসনের সব কটি টিকিট বিক্রি হয়েছে বলে রেলওয়ে স্টেশন সূত্র জানা গেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন