বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ওয়ানা মার্জিয়ার পক্ষের নেতা–কর্মীদের অভিযোগ, গতকাল শনিবার দুপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজয় শোভাযাত্রার আগে দলীয় কার্যালয়ে বসে মুহম্মদ সাহিন মহিলা আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীদের সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য করেন। এর প্রতিবাদে আজ রোববার বিকেলে উপজেলা সদরে মহিলা আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করেন।

default-image

এদিকে বিক্ষোভ মিছিলের ঘটনার প্রতিবাদে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুহম্মদ সাহিন সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন আহ্বান করেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করছিলেন মুহম্মদ সাহিন। এ সময় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া, তাঁর ভাই গলাচিপা পৌর মেয়র আহসানুল হক ও তাঁর মা উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নুর নাহার বেগম সমর্থকদের নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। এতে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। উভয় পক্ষের হাতাহাতি, চেয়ার ভাঙচুর ও পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

সংঘর্ষের বিষয়ে ওয়ানা মার্জিয়া বলেন, দলীয় কার্যালয়ে বসে নারী কর্মীদের অশালীন ভাষায় কথা বলে এখন আবার নারীদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে কুৎসা রটাচ্ছেন মুহম্মদ সাহিন। বিষয়টি জেনে প্রতিবাদ করতে দলীয় কার্যালয়ে গেলে তাঁদের ওপর সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে হামলা চালানো হয়।

মুহম্মদ সাহিন বলেন, আসলে মহিলাবিষয়ক সম্পাদকসহ তাঁদের পরিবারের লোকজন সব সময়ই তাঁকে বিভিন্নভাবে নাজেহাল করতে মিথ্যা অভিযোগ তুলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। রোববারও ঘটনার প্রতিবাদ ও বিষয়টি জানানোর জন্য সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করলে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া তাঁর লোকজন নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশ করে ওপর হামলা চালান। এ সময় তাঁরা দলীয় কার্যালয়ের চেয়ার ভাঙচুর করেন।

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। দলীয় কার্যালয়সহ আশপাশে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন