default-image

নাটোরের গুরুদাসপুরে অসুস্থ গরু জবাই করে মাংস বিক্রির অভিযোগে কসাই, গরুর মালিক ও এক পল্লিচিকিৎসক আটক হয়েছেন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাঁদের মোট ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আবু রাসেল।

দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে গরুর মালিক আয়নাল হককে ১০ হাজার টাকা, কসাই মো. মকবুল হোসেনকে ৫ হাজার ও পল্লিচিকিৎসক মো. রেজাউল করিমকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় উপজেলায় কর্মরত ৩০-৪০ জন পল্লিচিকিৎসক উপস্থিত ছিলেন।
আবু রাসেল জানান, উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের বেড়গঙ্গরামাপুর গ্রামের গরুর মালিক আয়নাল হকের একটি গাভি তিন দিন আগে একটি বাছুর প্রসব করে। পরে গাভিটি অসুস্থ হয়ে পড়লে জবাই করে নাজিরপুর হাটে মাংস বিক্রি করতে থাকেন তিনি। গরুটি সুস্থ বলে প্রত্যয়ন করেছিলেন পল্লিচিকিৎসক রেজাউল করিম। পরে স্থানীয় ব্যক্তিদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালিয়ে সত্যতা মিলে। এরপর গরুর মালিক ও কসাইকে আটক করা হয়। মাংসগুলো জব্দ করে মাটিতে পুঁতে ফেলা হয়। সন্ধ্যার পর ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে জড়িত তিনজনকে জরিমানা করা হয়।

এ সময় উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0