নিহত ওই কিশোরের নাম অন্তর মিয়া (১২)। সে মাধবদীর খিলগাঁও এলাকার মো. কামাল হোসেনের ছেলে। নিখোঁজ হওয়ার আগে অসুস্থ বাবার ইজিবাইক নিয়ে উপার্জনের জন্য সড়কে নেমেছিল সে।

সকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত তাকে ইজিবাইক চালাতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু রাতে সে আর বাড়িতে ফেরেনি।

পুলিশ ও নিহত অন্তরের পরিবার জানায়, অসুস্থ বাবার ইজিবাইক নিয়ে উপার্জনের জন্য গতকাল বুধবার সকালে বাড়ি থেকে বের হয় অন্তর মিয়া। সকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত তাকে ইজিবাইক চালাতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু রাতে সে আর বাড়িতে ফেরেনি। এরই মধ্যে বিভিন্ন জায়গায় তাকে খোঁজাখুঁজি করা হয়। পরে না পেয়ে আজ সকালে মাধবদী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে তার পরিবার। আজ বিকেলে একটি ডোবায় তার লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন গিয়ে অন্তরের লাশ শনাক্ত করেন। পরে মাধবদী থানার পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান বলেন, অন্তর মিয়ার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ইজিবাইকটি ছিনতাই করার সময় বাধা দেওয়ায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন