বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তারেক বলেন, সকাল ছয়টার দিকে বাসা থেকে বের হন। পথে আসতে আসতে রংপুরের তারাগঞ্জ এলাকায় এসে রিকশার চার্জ শেষ হয়ে যায়। এক অটোচালক বাচ্চার অসুস্থতার কথা জেনে তাঁকে প্রায় ১০ কিলোমিটার পথ এগিয়ে দেন। আর রিকশাটি রংপুরে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। এরপর আরেকটা অটোরিকশায় করে তিনি মেডিকেলে আসেন। রংপুরে আসার পর শিশু জান্নাতকে হাসপাতালের শিশু বিভাগে (১৮ নম্বর ওয়ার্ড) ভর্তি করা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক দেখার পর কিছু ওষুধ ও স্যালাইন দিয়েছেন। এরই মধ্যে কিছু মানুষ এগিয়ে এসেছেন। আরও অনেকেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

default-image

শনিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে খবরটি ছড়িয়ে পড়লে রংপুর নগরে অবস্থিত স্বপ্ন সুপারশপ শিশুটির চিকিৎসার ব্যয়ভার বহনের আশ্বার দিয়েছে। স্বপ্নর অপারশেন ম্যানেজার ফয়সাল শামস বলেন, ‘খবরটি জানার পর আমরা নিজ উদ্যোগে খোঁজখবর নিয়েছি। শিশুটির চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়া হয়েছে।’

তারেক ইসলাম ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার দক্ষিণ সালন্দর গ্রামের রামবাবুর গোডাউন এলাকার বাসিন্দা আনোয়ার হোসেনের বড় ছেলে। বিয়ের পর স্ত্রী সুলতানা বেগমকে নিয়ে আলাদা থাকা শুরু করেন। সংসারজীবনে তাঁর ৯ বছর ও ৩ বছর বয়সী আরও ২ মেয়েসন্তান রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন