বিজ্ঞাপন

আখাউড়া স্থলবন্দর সূত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত ৫৫ জন বাংলাদেশি ভারত থেকে দেশে ফিরেছেন। একই দিন ৫ জন ভারতীয় নাগরিক নিজ দেশে ফিরে গেছেন। দেশে ফেরা ৫৫ জনের মধ্যে কোয়ারেন্টিনের জন্য আখাউড়া রজনীগন্ধা হোটেলে ৮ জন ও নাইন স্টার হোটেলে ৩ জন, জেলার গ্র্যান্ড মালেক হোটেলে ২ জন, আশিক প্লাজা হোটেলে ১ জন, তাজ হোটেলে ৩ জন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩৫ জন এবং বিজয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ৩ জনকে পাঠানো হয়েছে। আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূর-এ আলম প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

default-image

এ নিয়ে ভারত থেকে দেশে ফেরা মোট ৩৫১ জন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন পূর্ণ করা ১০৪ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। ভারত থেকে ফেরা বাংলাদেশি নাগরিকদের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাতটি আবাসিক হোটেল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল, বিজয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন এবং জেলার বেসরকারি ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কোয়রেন্টিনে রাখা হচ্ছে। আবাসিক হোটেলগুলোর মধ্যে আখাউড়া উপজেলার হোটেল নাইন স্টার, হোটেল রজনীগন্ধা, জেলা শহরের হোটেল অবকাশ, হোটেল তাজ, হোটেল তিতাস, আশিক প্লাজা হোটেল ও গ্র্যান্ড মালেক হোটেল রয়েছে।

এসব হোটেল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা ও খাওয়া বাবদ খরচ ভারতফেরত বাংলাদেশি নাগরিকদের বহন করতে হয়। তবে বিজয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ভারতফেরত নাগরিকেরা থাকছেন বিনা মূল্যে, আর খাবার খাচ্ছেন নিজেদের খরচে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন