বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমরা আশা করি, সামরিক ও অর্থনৈতিকভাবে যতই শক্তিশালী দেশ হোক, তারা কোনোক্রমেই যেন আমাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে কোনো রকম হস্তক্ষেপ না করে। সম্প্রতি বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেছেন, বাংলাদেশে আগামী নির্বাচনে তারা কোনো পক্ষ নেবে না, এটিই স্বাভাবিক। এটিকে আমরা অভিনন্দন জানাই। সবার কাছে এটিই প্রত্যাশা। কোনো দেশের কোনো রকম হস্তক্ষেপ আমরা মেনে নেব না।’

আগামী নির্বাচনকে বানচাল করতে বিএনপিসহ সরকারবিরোধী দলগুলো নানা রকম ষড়যন্ত্র করছে বলে মন্তব্য করেন কৃষিমন্ত্রী। তিনি বলেন, তাদের মনে রাখতে হবে, দেশের জনগণ সব ক্ষমতার উৎস। জনগণের ভোটের মাধ্যমেই ক্ষমতায় আসতে হবে। কাজেই বিএনপি যতই ষড়যন্ত্র করুক, আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রকারীদের সঙ্গে হাত মেলাক, এ দেশের মানুষ তা মোকাবিলা করবে। নির্বাচন ছাড়া ষড়যন্ত্র করে বা চোরাগলি দিয়ে কেউ ক্ষমতায় আসতে পারবে না।

টাঙ্গাইলে ৫০০ শয্যা শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার জন্য টাঙ্গাইলবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান কৃষিমন্ত্রী ও হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালটি শুধু টাঙ্গাইলবাসীর জন্য নয়, উত্তরবঙ্গের অনেক মানুষের জন্যও খুবই প্রয়োজনীয়। কারণ, টাঙ্গাইল এখন উত্তরবঙ্গের গেটওয়ে। হাসপাতালটিকে আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসংবলিত আন্তর্জাতিক মানের হাসপাতালে উন্নীত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হবে।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক সাংসদ জোয়াহেরুল ইসলাম, সাংসদ তানভীর হাসান, শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক মোহাম্মদ আলী, জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, সিভিল সার্জন আবুল ফজল মো. সাহাবুদ্দিন খান, টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র এস এম সিরাজুল হক প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন