default-image

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে দুটি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এ সময় ঘরে ঘুমিয়ে থাকা মায়া আক্তার (৪৭) নামের এক মানসিক প্রতিবন্ধী নারীর মৃত্যু হয়েছে। আজ রোববার ভোরে উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের পূর্ব বিগা গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত মায়া পূর্ব বিগা গ্রামের মৃত সুজা মিয়ার মেয়ে। শর্টসার্কিট থেকে লাগা আগুনে দুটি ঘর ও আসবাব পুড়ে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার দুটি।

স্থানীয় লোকজন ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো জানায়, কুতুব উল্যাহ বাড়িতে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে কামাল উদ্দিন ও মফিজ খানের দুটি ঘরে আগুন লেগে যায়। মুহূর্তে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এর আগেই আসবাবসহ দুটি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ঘরে ঘুমিয়ে থাকা মফিজ খানের বোন মায়া আর বের হতে পারেননি। ওই ঘরে অন্য কেউ ছিলেন না। আগুন নেভানোর পর ঘরের মধ্যে মায়াকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন খান বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে স্থানীয় সাংসদের পক্ষ থেকে আর্থিক সহায়তা ও খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন থেকেও খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়েছে।

রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ আবদুর রশিদ বলেন, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। ঘুমন্ত অবস্থায় আগুনে দগ্ধ হয়ে মায়া আক্তার নামের একজন মারা গেছেন। আসবাব ও ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা হচ্ছে।

রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাপ্তি চাকমা বলেন, ঘুমিয়ে থাকা মেয়েটির মৃত্যুর ঘটনা মর্মান্তিক। অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের তালিকা করা হয়েছে। দ্রুত তাঁদের প্রশাসনিকভাবে সহায়তা করা হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন