বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সোমবার দিবাগত রাত পৌনে দুইটার দিকে দক্ষিণ সুরমার বারখলা এলাকা থেকে নাজমুল হোসেনকে আটক করে পুলিশ। ভুক্তভোগী শিশুটিকে বর্তমানে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের ওয়ান–স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিশুটি দক্ষিণ সুরমা রেলওয়ে স্টেশন ও আশপাশের এলাকায় ফুল বিক্রি করত। সোমবার সকালে শিশুটিকে ফুসলিয়ে দক্ষিণ সুরমার বারখলা এলাকার নিজের ভাড়া বাসায় নিয়ে যান নাজমুল হোসেন। পরে রাতে শিশুটিকে ঘর থেকে বের করে দেন। বেশ কিছুদিন ধরে নাজমুল হোসেন ওই বাসায় একাই ভাড়া থাকতেন। এ সময় স্থানীয় লোকজন শিশুটিকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে তার মায়ের কাছে নিয়ে যান।

পরে শিশুটি তার মাকে ধর্ষণের বিষয়টি জানালে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় দক্ষিণ সুরমা থানার পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। দক্ষিণ সুরমা থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নাজমুল হোসেনকে আটক করে। অসুস্থ ও আহত শিশুটিকে সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

দক্ষিণ সুরমা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কামরুল হাসান তালুকদার বলেন, শিশুটি বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী। ফেরি করে ফুল ও মালা বিক্রি করত। তাকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক নাজমুল হোসেন আরএনবি সদস্য। ওই শিশু বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সেখানে তার মা আছেন। ধর্ষণের ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

কামরুল হাসান আরও বলেন, মামলার পর আটক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে হাজির করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন