নাটোর রাজবাড়ির প্রধান ফটক আজ সোমবার সকালে খুলে দেওয়া হয়েছে
নাটোর রাজবাড়ির প্রধান ফটক আজ সোমবার সকালে খুলে দেওয়া হয়েছেপ্রথম আলো

করোনার কারণে প্রায় আট মাস বন্ধ থাকার পর আজ সোমবার দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে নাটোর রাজবাড়ি। দুপুরের পর থেকে দর্শনার্থীরা রাজবাড়ি চত্বরে ঢুকতে শুরু করেন। তবে জেলার আরেক স্থাপনা উত্তরা গণভবন এখনো উন্মুক্ত করা হয়নি।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে চলতি বছরের ১৯ মার্চ থেকে দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল নাটোর রাজবাড়ি। সম্প্রতি করোনার প্রভাব কিছুটা কমে আসায় জেলা প্রশাসন শর্ত সাপেক্ষে রানী ভবানী রাজপ্রাসাদ তথা নাটোর রাজবাড়ী দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সকালে রাজবাড়ির প্রধান ফটক দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। খোলার খবর প্রচার না হওয়ায় সকালে তেমন একটা দর্শনার্থী ছিল না। তবে বেলা তিনটার পর থেকে দর্শনার্থীদের নির্ধারিত টিকিট কেটে রাজবাড়ীর ভেতরে ঢুকতে দেখা যায়। এ সময় অস্থায়ী দোকানপাট বসতে শুরু করে।

এ বিষয়ে নাটোরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আশরাফুল ইসলাম বলেন, দর্শনার্থীদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে রাজবাড়ি খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে এ জন্য দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

দর্শনার্থীদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে রাজবাড়ি খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে এ জন্য দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।
আশরাফুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), নাটোর
বিজ্ঞাপন

এদিকে দর্শক চাহিদা থাকলেও নাটোরের উত্তরা গণভবন দর্শনার্থীদের জন্য এখনো উন্মুক্ত করা হয়নি। প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিপুলসংখ্যক দর্শনার্থী গণভবনের প্রধান ফটকে এসে ঢুকতে না পেরে ঘুরে যাচ্ছেন। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ গণভবন খোলার অনুমতি না দেওয়ায় স্থানীয় প্রশাসন গণভবন দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দিতে পারছে না বলে জানা গেছে।

জেলা প্রশাসক মো. শাহরিয়াজ বলেন, করোনার প্রভাব কিছুটা কমে আসায় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করার শর্তে দর্শনার্থীদের রাজবাড়ির ভেতরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। উত্তরা গণভবন খোলার ব্যাপারে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিদ্ধান্ত প্রয়োজন। সেখান থেকে এখন পর্যন্ত এ ধরনের সিদ্ধান্ত আসেনি। তাই গণভবন দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া যাচ্ছে না।

মন্তব্য পড়ুন 0