default-image

গত বছরের বন্যায় নওগাঁর আত্রাই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে প্রায় ৩০ কিলোমিটার রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পানি নেমে যাওয়ার চার মাস পরেও এগুলোর সংস্কার না করায় পথ চলতে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তার আশপাশের এলাকার বাসিন্দাদের।

এসব রাস্তার সংস্কারকাজ এখনো শুরু হয়নি। নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান বলেন, সংস্কারের জন্য ৫ কোটি ৫ লাখ টাকা প্রয়োজন।

সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ থেকে জানা যায়, বন্যায় আহসানগঞ্জ হাট–সংলগ্ন জাতআমরুল, সাহাগোলার রসুলপুর, বান্দাইখাড়া ও পাঁচুপুর এলাকায় রাস্তা ভেঙে যায়। সম্প্রতি সরেজমিনে দেখা যায়, মধুগুড়নই হয়ে পাঁচুপুর চারমাথা পর্যন্ত পাকা রাস্তার পাঁচুপুর পালপাড়া অংশে ভেঙে গেছে। এতে মালিপুকুর, পাঁচুপুর, মধুগুড়নইসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দারা চলাচলে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

পাঁচুপুর বাজারের পাশে একটি সরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্র, দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ জনগুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা আছে। আত্রাই উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পাঁচুপুর গ্রামের বাসিন্দা আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, ২০১৭ সালের বন্যায় এ রাস্তাটি ভেঙে গিয়েছিল। তখন বালু ভরাট করা হয়। গত বছরের বন্যায় আবার এ অংশ ভেঙে গেছে।

পাঁচুপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আফছার আলী প্রামাণিক বলেন, রাস্তাগুলো সংস্কারের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন