default-image

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলায় গ্রামীণ ঐতিহ্য পলো দিয়ে মাছ ধরার উৎসব হয়েছে। আজ রোববার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত আত্রাই নদের কালাকান্দর মহাশ্মশান থেকে শুরু হয়ে চাঁচকৈড় ত্রি-মোহনা (আত্রাই, নন্দকুঁজা ও গুমানী নদ–নদীর মোহনা) পর্যন্ত ওই উৎসব চলে। এতে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের শতাধিক মাছশিকারি অংশ নেন।

মাছ ধরার সময় নদের দুই তীরে উৎসুক জনতার ভিড় দেখা যায়।

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এ উৎসবে এক বা একাধিক নেতা থাকেন, যাঁর নেতৃত্ব মেনে সবাই নামেন পলো উৎসবে। প্রতিবছর শুকনা মৌসুমে খাল, বিল ও নদের পানি কোমর পর্যন্ত পৌঁছালে ওই পলো উৎসব শুরু হয়। বিশেষ করে ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ থেকে মার্চ মাসের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন বিল, নদী, জলাশয়ে ওই উৎসব চলে।

বিজ্ঞাপন

গত বছর আত্রাই নদ খননের কারণে নদের গভীরতা বেড়েছে। বৃদ্ধি পেয়েছে পানির সঙ্গে সঙ্গে মাছের পরিমাণ। তবে পানি বেশি থাকায় পলো উৎসবে নেমে মাছ খুব একটা ধরতে পারেননি তাঁরা।

উৎসবে অংশ নিতে আসা মশিন্দা ইউনিয়নের কাছিকাটা গ্রামের সজিব হোসেন জানান, ‘পলো দিয়ে মাছ ধরতে একটা অন্য রকম অনুভুতি কাজ করে। কলেজ বন্ধ তাই বড়দের সঙ্গে মাছ ধরার উৎসবে যোগ দিয়েছি।’

দলনেতা ছকির উদ্দিন জানান, প্রতিবছরই শুকনা মৌসুমে দলবেঁধে মাছ ধরার নেশায় নামেন তাঁরা। বলা যায় এটা বাবা-দাদার আমল থেকে এ উৎসব রীতিতে পরিণত হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন