বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রোকেয়া বেগম জানান, আজ সকাল ১০টায় তিনি কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন পরিষদে অস্থায়ী টিকাদানকেন্দ্রে যান। অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকার পর দুপুর ১২টার দিকে এক নারী স্বাস্থ্যকর্মী তাঁর বাঁ হাতে টিকা দেন। এর আধা ঘণ্টা পর ওই স্বাস্থ্যকর্মী আবার তাঁর বাঁ হাতে টিকা দেন।

আজ বিকেলে রোকেয়া বেগমের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। তবে তাঁর কোনো শারীরিক সমস্যা দেখা যায়নি।

এ সময় কথা হলে তিনি বলেন, ‘দুইবার টিকা নেওয়া লাগে বলে মনে করেছি। স্বাস্থ্যকর্মীর কাছে গেলে তিনি আমারে কিছু না কয়ে আবারও টিকা দিল। তহন খুব ভিড় আছিল। এখন সবাই কইতেছে, সমস্যা হইব। ভয় লাগতাছে।’

কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে টিকা প্রদান কার্যক্রমের দায়িত্বে ছিলেন ইউনিয়নের স্বাস্থ্য সহকারী গাজী আল-মামুন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে দুই ডোজ টিকা দেওয়ার ঘটনা তাঁর কেন্দ্রে ঘটেনি বলে দাবি করেন।

সিভিল সার্জন আনোয়ারুল আমিন আখন্দ বলেন, ভিড়ের মধ্যে ভুলে হয়তো ওই নারীকে দুই ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। ওই নারীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তাঁকে যথাযথ সেবা ও পরামর্শ দিতে সেখানকার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন