default-image

কক্সবাজারের টেকনাফের নয়াপাড়ায় নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থীশিবিরে আধিপত্য বিস্তারকে একটি ডাকাত দলের সদস্যরা অপর একটি ডাকাত দলের সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে। এ ঘটনার জেরে নিহত ব্যক্তির পক্ষের সদস্যরা অপর পক্ষের এক সদস্যকে কুপিয়ে জখম করেছে।

গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে নয়াপাড়া ক্যাম্পের সি ব্লকে এ ঘটনা ঘটে। জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। ১৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম আজ রোববার প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত রোহিঙ্গার নাম মো. জুবায়ের (২১)। তিনি সালমান শাহ নামে ডাকাত দলের সদস্য ও নয়াপড়া ক্যাম্পের ই ব্লকের বাসিন্দা দিল মোহাম্মদের ছেলে। গুরুতর আহত ব্যক্তির নাম মো. জলিল ওরফে সুনিয়া (২২)। তিনি পুতিয়া দলের সদস্য বলে জানিয়েছে এপিবিএন।

তারিকুল ইসলাম জানান, শনিবার  দিবাগত রাতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রথমে ক্যাম্পে পুতিয়া ডাকাত দলের সদস্যরা সালমান শাহ দলের জুবায়েরকে ধরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করেন। এ ঘটনার জের ধরে পরে সালমান শাহ দলের সদস্যরা পুতিয়া দলের মো. জলিলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ক্যাম্পে অভিযান চালায়। ঘটনাস্থল থেকে জলিলকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, নিহত জুবায়েরের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছেন তাঁরা।

এদিকে হামলা ও পাল্টা হামলার ঘটনার পর আজ রোববার ক্যাম্পের ভেতরের অনেক দোকানপাট বন্ধ থাকতে দেখা যায়। টহল দিতে দেখা যায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের। ক্যাম্পের রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ক্যাম্পে প্রায়ই হামলা, পাল্টা হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ কারণে সাধারণ বাসিন্দাদের আতঙ্কে থাকতে হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন